মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলার পটভূমি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামকরণঃ  ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামকরণের ভিন্ন ভিন্ন মত রয়েছে। অনেকের মতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামকরণের সাথে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের স্থপতি বলে কথিত কাজী মাহমুদ শাহ(রাঃ) এর নাম জড়িত । তিনি ষষ্ষ্ঠ ও সপ্তদশ শতকের মধ্যবর্তী সময়ে এখানে এসেছেন বলে কেউ কেউ অনুমান করেন। সে মতকে ধরে নিলে ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া ’ নামকরণের বয়স সাত/আটশত বছর। ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামকরণের আগে এই জনপদ কি নামে পরিচিত ছিল তা রহস্যাবৃত। তবে অধ্যাপক হাফিজ উদ্দিন আহম্মদ এক প্রবন্ধে ঐতিহাসিক প্রমান এবং বস্ত্তনিষ্ট তথ্য ছাড়া ‘ব্রাহ্মণবাড়িয়া’ শহরের পূর্ব নাম ‘রং’ শহর উল্লেখ করেছেন। এই রং শহর কিভাবে ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামাঙ্খিত হল এ সম্পর্কে দুটি জনশ্রুতি প্রচলিত। বাংলাদেশে সেন বংশের শাসনামলে এদেশে কোন ব্রাহ্মণ পরিবার না থাকার কারনে হিন্দু সম্প্রদায়ের পূজা পার্বন অনুষ্ঠান পরিচালনায় অসুবিধা সৃষ্টি হতো। এ অসুবিধা দূর করার লক্ষ্যে রাজা বল্লাল সেন ‘ কান্যকুব্জ্য’ থেকে বেশ কয়েকটি অভিজাত ব্রাহ্মণ পরিবার এনেছিলেন। ভিন্ন মতে, এদেশে বৃটিশ রাজত্ব পূর্বকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলাধীন সরাইলের প্রতাপশালী দেওয়ান পরিবার জমিদাররা অন্যস্থান থেকে কটি অভিজাত ব্রাহ্মণ পরিবার হিন্দুদের পূজা পার্বনের সুবিধার জন্য এ এলাকায় এনেছিলেন। এই ব্রাহ্মণদের একটি পরিবার ‘ রং শহরে ’ ( বর্তমান ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহর) বসবাস করতেন। ব্রাহ্মণের আস্তানা থেকেই ‘ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ’ নামের উৎপত্তি হয়েছে হয়েছে বলে অনেকে মনে করেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া নামকরণের ব্যাপারে সমধিক প্রচলিত জনশ্রুতি হল ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের কাজীপাড়া মহল্লায় হযরত কাজী সৈয়দ মাহমুদ শাহ(রাহঃ) এর মাজার বিদ্যমান। এ আল্লাহর ওলী মোঘল শাসনামলে এ অঞ্চলে ইসলাম প্রচারে আসেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের ব্রাহ্মণেরা উক্ত দরবেশের অলৌকিক ক্ষমতায় বিষ্ময়াবিষ্ট হন এবং তাদের বিরোধিতা জনিত অপকর্মের ক্ষমা চেয়ে নবীনগর থানার বিদ্যাকুট গ্রামে চলে যান। যাবার প্রাক্কালে ব্রাহ্মণেরা কাজী সৈয়দ মাহমুদ শাহ(রাহঃ) কে এ মর্মে অনুরোধ করেন যে, দীর্ঘদিন রং শহরে তাদের প্রাধান্য ছিল। তাই তিনি যেন এ রং শহরের নামকরণে তাদের স্মৃতিকে সম্পৃক্ত রাখেন। ওলীয়ে কামেল সৈয়দ মাহমুদ শাহ (রাহঃ) তাদের অনুরোধ রক্ষা করেন এবং ‘ ব্রাহ্মণ বেড়িয়ে যাওয়া থেকে’ ব্রাহ্মণবেড়িয়া আবার ব্রাহ্মণবেডিয়া থেকে ‘ ব্রাহ্মণবাড়িয়া ’ নামকরণ হয়।

 

ভৌগলিক অবস্থানঃ  পূর্বে -   বিজয়নগর  উপজেলা ও আখাউড়া উপজেলা ,  পশ্চিমে -  আশুগঞ্জ উপজেলা ও নবীনগরউপজেলা,    উত্তরে- সরাইল  উপজেলা ও  নাসিরনগর উপজেলা, দক্ষিণে -আখাউড়া, কসবা ও নবীনগর উপজেলা ।

 

১৯৮৪  সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর উপজেলা ঘোষনা করা হয়।